অমুসলিমদের অপবিত্র বলা মূর্খতা। হেযবুত তওহীদ।

অমুসলিমরা অপবিত্র বলে মহান আল্লাহ ঘোষণা দিয়েছেন। কিন্তু এই কথার উপরও কলম ধরার দু:সাহস করেছে হেযবুত তওহীদ।

হেযবুত তওহীদের দাবি

হেযবুত তওহীদ তাদের বইয়ে লিখেছে,

 “এটা চরম মূর্খতার পরিচয় যে আমরা এক স্রষ্টা থেকে আগত এক জাতি, এক বাবা-মায়ের সন্তান হয়েও এভাবে একে অপরকে বিধর্মী মনে করে নিজেদের পায়ে নিজেরা কুড়াল মেরে চলেছি। আমরা এক ভাই আরেক ভাইকে অশুচি অপবিত্র মনে করি। আচারের নামে এই সব অনাচার ধর্মের সৃষ্টি নয় ধর্মব্যবসায়ীদের সৃষ্টি।”
সূত্র: মহাসত্যের আহ্বান পৃষ্ঠা-১০৪

অর্থাৎ যারা অমুসলিমদের নাপাক বা অপবিত্র বলে, তারা ধর্মব্যবসায়ী, মূর্খ এবং অনাচারী।

ইসলামের দাবি

অমুসলিমরা অপবিত্র এটা ইসলামে সুস্পষ্ট। হযরত হাসান বসরী র. বলেন,

إنما المشركون نجس فلا تصافحوهم فمن صافحَهم فليتوضَّأ

অর্থ: মুশরিকরা নাপাক, তাদের মাখে মুসাফাহা করো না; যতি কেউ মুসাফাহা করে সে যেন ওযু করে।
সূত্র: মুসান্নিফে ইবনে আবি শায়বা হাদিস: ২৬২৪১

আমাদের জেনে রাখা উচিৎ “অমুসলিমদেরকে অপবিত্র ঘোষণা সর্বপ্রথম করেছেন আমাদের সৃষ্টিকর্তা মহান আল্লাহ তা’য়ালা। পবিত্র কুরআনে মহান আল্লাহ বলেন,

يَا أَيُّهَا الَّذِينَ آمَنُواْ إِنَّمَا الْمُشْرِكُونَ نَجَسٌ فَلاَ يَقْرَبُواْ الْمَسْجِدَ الْحَرَامَ بَعْدَ عَامِهِمْ هَذَا

অর্থ: হে ঈমানদারগণ! মুশরিকরা তো অপবিত্র। সুতরাং এ বছরের পর তারা যেন মসজিদুল-হারামের নিকট না আসে।
সুরা তাওবা আয়াত-২৮

সুতরাং অমুসলিমদের অপবিত্র বলা যদি ধর্মব্যবসা, মূর্খতা এবং অনাচার হয়, তাহলে কি আমাদের মহান রবও মূর্খ? তিনিও কি ধর্মব্যবসায়ী? আল্লাহও কি অঅনাচারী?(নাউযুবিল্লাহ)। এমন জঘন্য পাপ থেকে আল্লাহ আমাদের হিফাযত করেন। আমিন!

অথচ হেযবুত তওহীদ ভিন্ন ধর্মাবলম্বিদের ব্যাপারে কি সব মন্তব্য করেছে একটু নজর বুলানো যাক। তারা লিখেছে,

সকল ধর্ম আফিম:

কাল মার্চ সকল ধর্মকে আফিম বলেছেন। সেজন্য তাকে কিছুমাত্র দোষ দেই না, তিনি একেবারে সত্য কথা বলেছিলেন। কারন পৃথিবীতে কোন ধর্ম অবিকৃত ছিল না
সূত্র: শ্রেণীহীন সমাজ সাম্যবাদ প্রকৃত ইসলাম পৃষ্ঠা-৬০

সব ধর্মের অনুসারীরা দাজ্জালের অনুসারী:

আজকে হিন্দু, বৌদ্ধ, মুসলিম, ইহুদী, খ্রিস্টান কেউই তাদের ধর্মগ্রন্থের অনুসরণ করছে না। সকলেই স্ব ধর্মের বিধান থেকে সরে গেছে এবং দাজ্জালের (জড়বাদী বস্তুতান্ত্রিক সভ্যতা) অনুসরণ করছে।
সূত্র: সবার উর্ধ্বে মানবতা পৃ:১১

প্রাচ্যের ধর্মের অনুসারীরা পশুর মত:

প্রাচ্যের জাতিগুলির ধর্মবিশ্বাস, কুসংস্কার, মানুষগুলি পশু পর্যায়ের।
সূত্র: ইসলাম শুধু নাম থাকবে পৃষ্ঠা-১২০

প্রিয় পাঠক, হেযবুত তওহীদ ইসলামসহ সকল ধর্মকে আঘাত করে এমন উক্তি করেও সব দোষ মুসলিমদের উপর চাপিয়ে দিয়ে নিজেদের বিষয়ে কি প্রমাণ করতে চায়? এটা কি কাইল্লা চোরার গল্পের মত নয়?

About H.M.Abu Sufean

Check Also

জীবনের সমস্ত ইচ্ছা পূরণ করুন শুধু নিজের অবচেতন মনকে নিয়ন্ত্রণ করে। জেনে নিন কীভাবে

প্রতিটি মানুষেরই মনোবাসনা থাকে কিছু। মনোবিজ্ঞানীরা বলছেন, সেই বাসনা পূরণের ক্ষেত্রে আমাদের অবচেতন মন একটা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *